করোনার দিনে আগামীর তারকা খুঁজছেন মাহফুজুর রহমান

0
175

নতুন তারকার সন্ধানে টেলিভিশন চ্যানেলগুলো প্রায় রিয়েলিটি শো এর আয়োজন করে থাকে। এই নানা শো থেকে অনেকেই তারকা হয়েছে পরবর্তীতে। সেই ধারাবাহিকতায় এটিএন বাংলায় শুরু হতে যাচ্ছে রিয়েলিটি শো ‘সাউথ এশিয়ান ডান্স কম্পিটিশন ও আগামীর তারকা’।

‘দুরে থেকেও কাছে থাকা’ এই শ্লোগানে লকডাউনের ঘরবন্দী জীবনে সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে মেতে ওঠার জন্য এই আয়োজন করছে এটিএন মিডিয়া কমিউনিকেশন। ৮ জুন এটিএন বাংলা কার্যালয়ে প্রতিযোগিতার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রতিযোগিতা সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন আয়োজনের চিফ কোর্ডিনেটর ও এটিএন এম সি এল এর সি ই ও সাজেদুর রহমান মুনিম। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন এটিএন বাংলা, এটিএন নিউজ ও এটিএন এম সি এল এর চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান।

প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দুই বাংলা’র অনলাইন একক সংগীত, নৃত্য ও একক অভিনয় প্রতিযোগিতায় ১০-১৮ এবং ১৯-৩০ বয়স ক্যাটাগরীর দু’টি বিভাগে প্রতিযোগীরা অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

আগ্রহী শিল্পীদের আগামী ২০ জুন ২০২০ তারিখের মধ্যে নিজের গাওয়া পূর্ণাঙ্গ একক সংগীত, একক অভিনয় অথবা একক নৃত্যের ২ টি করে চার মিনিটের ভিডিওসহ রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কিত তথ্যের জন্য ইমেইল : [email protected] ও হোয়াটস অ্যাপ : +8801715-008310 , +8801795356301 এই ঠিকানায় যোগাযোহ করতে বলা হয়েছে।

এই প্রতিযোগিতা নিয়ে মাহফুজুর রহমান বলেন, ‌‘স্যাটেলাইট চ্যানেলের জগতে সবসময়ই সকল বিষয়ে এগিয়ে এটিএন বাংলা। বাংলা ভাষাভাষীদের সুপ্ত প্রতিভাকে বিকশিত করার প্রত্যয়ে এটিএন বাংলা সবসময়ই ভূমিকা রেখেছে। পৃথিবীব্যাপী মানুষ যখন ঘরে থেকে ক্লান্ত-শ্রান্ত হয়ে গিয়েছে। মানসিক অবসাদে ভুগছে শিশু-কিশোররা, সেই সময়ে এই আয়োজন কিছুটা হলেও সকলের মাঝে স্বস্তির নিঃশ্বাস হিসেবে উদাহরণ হয়ে থাকবে।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এই প্রতিযোগিতা থেকে যে সকল শিল্পী বেরিয়ে আসবে তাদের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে কাজ করার সুযোগ করে দেবে এটিএন বাংলা। এছাড়াও তাদের জন্য থাকবে আকর্ষণীয় পুরস্কার।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন কন্ঠশিল্পী ফাতেমা তুজ জোহরা, নৃত্যশিল্পী নিলুফার ওয়াহিদ পাপড়ি, সোহেল রহমান, নির্মাতা নার্গিস আক্তার, মুরাদ পারভেজ, মাসুম শাহরীয়ার, অভিনেত্রী সুমনা সোমা এবং বিউটিশিয়ান ফারনাজ আলম। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন শফিউল আলম বাবু।

আপনার মতামত লিখুন :