অসচেতনতায় খারাপের দিকে যাচ্ছে রাজশাহীর করোনা পরিস্থিতি

0
40

রাজশাহীতে ক্রমেই খারাপ হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি। প্রতিদিনই লাফিয়ে লফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহীতে নতুন করে করোনা ধরা পড়েছে ১২ জনের। এর আগের দিন করোনা শনাক্ত হয় ৮ জনের। এ পর্যন্ত জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১৬ জনের। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। করোনা সংক্রমণে বিভাগের আট জেলার মধ্যে রাজশাহীর অবস্থান এখন পাঁচে।

এর আগে করোনা ঠেকাতে টানা দুই মাসের লকডাউন শেষে অফিস ও বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলে ১ জুন। ওই দুই মাসে রাজশাহী জেলায় করোনা রোগী ছিল ৫১ জন। করোনায় মৃতের সংখ্যাও এতদিন আটকে ছিল দুই জনে। কিন্তু সবকিছু খোলার পর মাত্র দুই সপ্তাহ না পেরুতেই সংক্রমণের তালিকায় আরও ৬৫ জন যুক্ত হন। মৃতের মিছিলে যুক্ত হন আরও একজন।

কেবল অসচেতনতা ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তাই স্বাস্থ্য বিধি মানাতে আবারো বিশেষ অভিযানে নেমেছে রাজশাহীর জেলা প্রশাসন।

শুক্রবার সকালে জেলার সিভিল সার্জন ডা. এনামুল হক বলেন, রাজশাহীতে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে এ পর্যন্ত ১১৬ জনের। এর মধ্যে গত এক দিনেই করোনা ধরা পড়েছে ১২ জনের। জেলায় আক্রান্ত ১১৬ জনের মধ্যে ৩৮ জনই রাজশাহী নগরীর বাসিন্দা। বাকি ৭৮ জনের বাড়ি জেলার নয়টি উপজেলায়। এ পর্যন্ত করোনা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৮০ জন।

এরই মাঝে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে রাজশাহী সিটির একজন এবং জেলার মোহনপুর ও বাঘার মোট দুজন। তবে আশার কথা হলো করোনা জয় করেছেন এ পর্যন্ত ৩৩ জন।

এ পর্যন্ত জেলার বাঘা উপজেলায় ৯ জন, চারঘাটে ১২ জন, পুঠিয়ায় ১১ জন, দুর্গাপুরে ৪ জন, বাগমারায় ৯ জন, মোহনপুরে ৯ জন, তানোরে ১৫ জন, পবায় ৮ জন এবং গোদাগাড়ীতে একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিভিল সার্জন আরো জানান, রাজশাহীতে প্রথম করোনা শনাক্ত হয় গত ১২ এপ্রিল জেলার পুঠিয়ায়। শুরুর দিকে যারা ঢাকা-নারায়নগঞ্জ থেকে ফিরেছেন তাদের মাঝেই করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। কিন্তু এখন চলছে কমিউনিটি সংক্রমণ। নতুন করে যাদের করোনা ধরা পড়ছে তাদের কোনো ট্রাভেল হিস্টরি নেই। অসচেতনতা থেকে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় সংক্রমণ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন। সেইসঙ্গে সংক্রমণে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। প্রয়োজনে বের হলে মাস্ক পরা ছাড়াও জনসমাগম এড়িয়ে চলারও আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে নতুন করে সংক্রমণ ঠেকাতে গত বুধবার থেকে আবারো কঠোর অবস্থানে রাজশাহীর জেলা প্রশাসন। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চললেই পড়তে হচ্ছে শাস্তির কবলে।

রাজশাহীর জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক জানিয়েছেন, মাস্ক না পরাসহ অন্যান্য অপরাধে বৃহস্পতিবার জেলাজুড়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়েছে। এ সময় ১৬৫টি মামলায় ১ লাখ ২৫ হাজার ৪৫০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এর আগের দিন বুধবার ৬২ জনকে পাকড়াও করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। তাদের কাছ থেকে জরিমানা আদায় হয় ৩৪ হাজার ১৭০ টাকা।

মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধিতে বৃহস্পতিবার বিতরণ করা হয়েছে ৭ হাজার ৫৬০ পিস মাস্ক। বুধবারও মাস্ক বিতরণ করা হয়। জরিমানার কবলে পড়ছেন মাস্ক না পরা সামর্থ্যবানরা। তবে অস্বচ্ছলদের জন্য ফ্রি মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। জনস্বার্থে এই অভিযান চলবে। এ সময় সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান জেলা প্রশাসক।

আপনার মতামত লিখুন :