ভার্চুয়াল কোর্টে ৪৮৯ কিশোরের জামিন, ৪৬০ জন অভিভাবকের কাছে

0
120

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ভার্চুয়াল কোর্টে শুনানি শেষে গত ২০ কর্মদিবসে ৩৩ হাজার ১৫৫টি জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। এর মধ্যে ৪৮৯ কিশোরের জামিন আবেদনও করা হয় আদালতে। ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ৪৮৯ কিশোরেরই জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

তিনটি কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে থাকা ৮৮০ জনের মধ্যে ভার্চুয়াল কোর্টে গত ২০ কার্যদিবসে ৪৮৯ কিশোরকে জামিন দেয়া হয়েছে। জামিনের পর এদের মধ্যে ৪৬০ জন কিশোরকে ইতোমধ্যে তাদের অভিভাবকের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ তথ্য জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র ও হাইকোর্ট বিভাগের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান।

গত ৯ মে ভার্চুয়াল কোর্টে শুনানির জন্য অধ্যাদেশ জারি করা হয়। পরদিন ১০ মে উচ্চ আদালতের সব বিচারপতিকে নিয়ে প্রথমবারের মতো ভিডিও কনফারেন্সে ফুলকোর্ট সভা করেন প্রধান বিচারপতি।

এরপর উচ্চ আদালতসহ অধস্তন আদালতে ভার্চুয়াল শুনানিতে বিজ্ঞপ্তি জারি করে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। তারপর থেকে উচ্চ আদালতসহ সারাদেশে ভার্চুয়াল কোর্টে বিচার কাজ অব্যাহত রয়েছে।

সাইফুর রহমান জানান, ১১ জুন পর্যন্ত মোট ২০ কার্যদিবসে ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে জামিনপ্রাপ্ত কিশোরের সংখ্যা ৪৮৯ জন। এরমধ্যে অভিভাবকের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে ৪৬০ জনকে। অবশিষ্ট রয়েছে আরও ২৯ কিশোর। সারাদেশের তিনটি কেন্দ্রে মোট কিশোর ছিল ৮৮০ জন।

করোনার মধ্যে দফায় দফায় সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হয়। সর্বশেষ গত ১৬ মে দেয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে সাধারণ ছুটির মেয়াদ ৩০ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়। তবে সরকার ৩০ মে’র পর সাধারণ ছুটি আর না বাড়ালেও আদালত অঙ্গনে নিয়মিত কার্যক্রমের পরিবর্তে ভার্চুয়াল বিচার কাজ অব্যাহত থাকবে ১৫ জুন পর্যন্ত।

আপনার মতামত লিখুন :