পেনশন তুলতে শয্যাশায়ী মাকে খাটে শুইয়ে টেনে নিয়ে গেলেন ব্যাংকে

0
104

অ্যাকাউন্টের মালিক সশরীরে উপস্থিত না হলে পেনশনের টাকা দেয়া হবে না বলে ব্যাংক কর্মকর্তা জানিয়ে দেয়ার পর টাকা তুলতে একশ বছর বয়সী মা-কে খাটে শুইয়ে টেনে টেনে ব্যাংকে হাজির করলেন তার ৬০ বছর বয়সী মেয়ে। ভারতের ওডিশা প্রদেশের প্রত্যন্ত গ্রামের এই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।

স্থানীয় গ্রামবাসীরা বলেছেন, গত ১০ জুন ওডিশার নুয়াপাড়া জেলার বরগাঁও গ্রামের বাসিন্দা পুঞ্জিমাতা দেই তার শয্যাশায়ী মা লাভে বাঘেলকে খাটে শুইয়ে কাঁচা সড়ক ধরে টানতে টানতে উৎকল গ্রামীণ ব্যাংকের স্থানীয় শাখায় নিয়ে যান। পেনশন ভাতার ১ হাজার ৫০০ টাকা তুলতে গেলে ব্যাংক কর্মকর্তা অ্যাকাউন্টের মালিককে আনতে বলেন।

অসুস্থ শয্যাশায়ী মায়ের কথা ওই কর্মকর্তাকে জানালে তাতেও টাকা দিতে রাজি হননি তিনি। পরে উপায় না দেখে খাটিয়ায় শুইয়ে অসুস্থ মাকে হাসপাতালে নিয়ে যান পুঞ্জিমাতা দেই। ব্যাংক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অমানবিক আচরণের অভিযোগ তুলেছেন বরগাঁও গ্রামের বাসিন্দারা।

করোনা সংকট মোকাবিলায় গত মার্চ মাসে ‘প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ প্রকল্প’র আওতায় দরিদ্র নারীদের জনধন ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এপ্রিল মাস থেকে মাসিক ৫০০ টাকা সাহায্য দেয়া হবে বলে ঘোষণা দেয় দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার।

ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের ব্যাপারে ওডিশার নুয়াপাড়ার জেলা প্রশাসক মধুস্মিতা সাহু বলেন, ৯ জুন ব্যাংকে গেলে ম্যানেজার জানান, নথিপত্র যাচাই করতে একদিন সময় লাগবে। এ কারণে পরের দিন পুঞ্জিমাতার বাড়িতে নিজেই যাবেন বলে জানান ম্যানেজার।

ব্যাংকটির ওই শাখা মাত্র একজন কর্মীকে সামলাতে হয় বলে এমন বিলম্ব দেখা দেয় বলে দাবি জেলা প্রশাসকের। তিনি বলেন, অপেক্ষা না করে পরের দিন মা-কে ব্যাংকে নিয়ে আসেন পুঞ্জিমাতা।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।

আপনার মতামত লিখুন :