ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর মৃত্যুতে দারুল আরকাম শিক্ষক কল্যাণ সমিতির শোক প্রকাশ

0
285

আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এর মৃত্যুতে দারুল আরকাম শিক্ষক কল্যাণ সমিতির পক্ষে সমিতির আহবায়ক মুহিউদ্দিন আমিনী ও মহাসচিব আনাস মাহমুদ যৌথ বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, “ব্যক্তিগত জীবনে শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ মহৎ হৃদয়ের অধিকারী সদালাপী একজন মানুষ ছিলেন। ১৯৬৬ সালের ৬ দফা আন্দোলন, ৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থান, ৭০ সালের নির্বাচনসহ পরবর্তী সকল আন্দোলন সংগ্রামে এবং ৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ক্বওমী মাদরাসা সনদের রাষ্ট্রীয় সীকৃতির ব্যাপারে তিনি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। সুষ্ঠু ও দুর্নীতি মুক্ত হজ্ব ব্যবস্থাপনা এবং আলেম উলামার তত্বাবধানে হজ্ব পালনের বিষয়ে দৃঢ় অঙ্গীকার নিয়ে কাজ করেছেন।

তিনি দারুল আরকাম মাদরাসার উন্নতির বিষয়ে খুবই আন্তরিক ছিলেন এবং দারুল আরকামের মাধ্যমে আলেম উলামার বৃহত্তর সরকারি কর্মসংস্থানের স্বপ্ন লালন করতেন। তাঁর মৃত্যুতে দারুল আরকাম, ধর্মীয় অঙ্গন ও রাষ্ট্রের যে সীমাহীন ক্ষতি সাধিত হয়েছে তা পূরণ করা দূরহ।’ তারা মরহুমের মাগফিরা কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন ধরে শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ অসুস্থ বোধ করেছিলেন। শনিবার রাতে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায় এবং তাঁর হার্ট আ্যাটাক হয়। পরে রাত ১০ টায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে সাড়ে ১১টার দিকে তাঁর ইন্তেকাল হয়। ক্বওমী মাদরাসা থেকে হাফেজে কুরআন হওয়ার মাধ্যমে তাঁর পড়ালেখার যাত্রা শুরু হয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে এম.এ. ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৯৭৩ সালে স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। কিন্তু রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে দেশসেবা করার লক্ষ্যে চাকরিতে যোগদান থেকে বিরত থাকেন।

আজ রোববার (১৪ জুন) বিকেল সোয়া ৪টার দিকে সদর উপজেলার কেকানিয়া গ্রামে ফ্রিজিং অ্যাম্বুলেন্সে তার মরদেহ পৌঁছে। এরপর স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাদ আসর কেকানিয়া গ্রামে নিজ বাড়ির মসজিদ প্রাঙ্গণে জানাজা সম্পন্ন হয়। উনার প্রতিষ্ঠিত কেকানিয়া দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদরাসার পাশে মা-বাবার কবরের কাছে শেখ আব্দুল্লাহকে দাফন করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন :