ফের ডোপ টেস্টে ফাঁকি, নিষিদ্ধ হলেন বিশ্বের দ্রুততম মানব

0
103

গত বছর দোহায় প্রথমবারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ জেতেন আমেরিকার স্প্রিন্টার ক্রিশ্চিয়ান কোলম্যান। তখন থেকেই তাকে নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছিল। ডোপ পরীক্ষায় লুকোচুরি করে যাচ্ছিলেন।

এবার তৃতীয়বারের মতো ডোপ পরীক্ষা থেকে পালিয়ে সাময়িক নিষিদ্ধ হলেন ১০০ মিটারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। বিশ্বের দ্রুততম এই মানব অবশ্য এখনও নিজেকে নির্দোষ দাবি করছেন। বলছেন, অ্যাথলেটিকস ইন্টেগ্রিটি ইউনিটের দাবি (এআইইউ) সত্য নয়।

গত ৯ ডিসেম্বর ডোপ পরীক্ষা ছিল কোলম্যানের। পরীক্ষার জন্য তার বাড়িতে গিয়েছিলেন পরীক্ষক। কিন্তু কোলম্যানকে সেখানে পাওয়া যায়নি। ফলে তার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন জমা পড়ে।

তবে ২৪ বছর বয়সী এই আমেরিকান স্প্রিন্টারের দাবি, ক্রিসমাসের জন্য তিনি একটু শপিং করতে গিয়েছিলেন। পরীক্ষক তার সঙ্গে যোগাযোগই করেননি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে কোলম্যান লিখেন, ‘আমি কখনও পারফরম্যান্স বর্ধক ওষুধ নেইনি এবং ভবিষ্যতেও নেব না।’

তিনি যোগ করেন, ‘এর আগে পরীক্ষার সময় প্রতিবারই আমার সঙ্গে ফোনো যোগাযোগ করা হয়েছে। এবার কেন এর ব্যতিক্রম হলো? তিনি বলেছেন, ডোরবেলও শুনতে পাননি, তবে কেন আমাকে কল করলেন না? কেন তাকে এআইইউ যোগাযোগ করতে নিষেধ করেছে? তিনি ভুল ঠিকানা দিয়েছেন, কে জানে তিনি আমার বাড়িতে এসেছিলেন কি না।’

এর আগে ২০১৯ সালের ১৬ জানুয়ারি এবং একই বছর ২৬ এপ্রিল ডোপ পরীক্ষায় অনুপস্থিত ছিলেন কোলম্যান। গত বছর অবশ্য হিসাবের ফাঁকফোকর দিয়ে শাস্তি এড়াতে সক্ষম হন কোলম্যান। কিন্তু এবার সম্ভবত ২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হতে হবে তাকে। আর এমনটা হলে আসন্ন টোকিও অলিম্পিকেও অংশ নিতে পারবেন না বিশ্বের দ্রুততম এই মানব।

আপনার মতামত লিখুন :