এ বছরের নিবন্ধনে ২০২১ সালেও যাওয়া যাবে হজে

0
113

হজ পালনের উদ্দেশে যারা এ বছর প্রাক-নিবন্ধন এবং নিবন্ধন করেছেন, এই নিবন্ধন আগামী বছর তথা ২০২১ (১৪৪২ হিজরি) সালে হজ পালনের জন্য প্রাক নিবন্ধন এবং নিবন্ধন হিসেবে কার্যকর থাকবে। এক্ষেত্রে আগামী বছর যদি কোনো কারণে হজ প্যাকেজের ব্যয় বৃদ্ধি বা হ্রাস পায় তবে সেটি বর্তমানে জমা দেয়া অর্থের সঙ্গে সমন্বয় করা হবে।এছাড়া সরকারি অথবা বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় যে সকল হজযাত্রী নিবন্ধনের জন্য অর্থ জমা দিয়েছেন তারা চাইলে আগামী ১২ জুলাইয়ের পর সে অর্থ উত্তোলনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

কোনো হজযাত্রী হজের টাকা উত্তোলন করতে চাইলে তাদেরকে অনলাইনে মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। কোন প্রকার সার্ভিস চার্জ ছাড়াই পুরো অর্থ ফেরত দেয়া হবে।বুধবার (২৪ জুন) ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, চলতি বছর হজের জন্য জমাকৃত নিবন্ধনের টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য আবেদন করলে সংশ্লিষ্ট হজযাত্রীর প্রাক নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে নতুন করে হজে যেতে চাইলে নতুন করে প্রাক নিবন্ধন করতে হবে।এছাড়া বেসরকারি হজ ব্যবস্থাপনার হজযাত্রী নিবন্ধন বাতিল করে টাকা উত্তোলন করতে চাইলে তার হজ এজেন্সির মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করবেন। মন্ত্রণালয় তা অনুমোদন করা সাপেক্ষে হজ এজেন্সির মাধ্যমে অথবা ব্যাংকের মাধ্যমে তাদের জমাকৃত অর্থ গ্রহণ করবেন।

সভায় প্রয়াত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। উল্লেখ্য, ২০২০ সালে বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ৩৭ হাজার ১৯১ জনের হজে যাওয়ার কথা ছিল। তবে মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবার সীমিত পরিসরে অল্পসংখ্যক মানুষের অংশগ্রহণে হজের আয়োজন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। যারা ইতিমধ্যে দেশটিতে অবস্থান করছেন শুধু এমন মানুষরাই এবারের হজে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

দেশটির হজ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘এই বছরও হজের আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে সৌদিতে অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা সীমিত সংখ্যায় এবারের হজে অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন।’

আপনার মতামত লিখুন :