মানবিক বিবেচনায় শুটিং করতে শীর্ষ তারকাদের প্রতি আহ্বান

0
123

শর্তসাপেক্ষে টিভি নাটকের শুটিং শুরু হলেও তাতে সাড়া দিচ্ছেন না চাহিদাসম্পন্ন তারকারা। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এসব তারকার শুটিংয়ে অনাগ্রহের কারণে আর্থিক ও কনটেন্ট সংকটে পড়েছে দেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো। পুরানো নাটক জোড়া-তালি দিয়ে গত ঈদ পার করলেও আসছে কোরবানি ঈদে সেটা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন অনেক নির্মাতা। নানা সমস্যা আঁচ করতে পেরে বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ প্রথম সারির তারকাদের কাজে ফেরাতে উদ্যোগ নিচ্ছেন। এরই মধ্যে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আর টিভি’র পক্ষ থেকে মোশাররফ করিম, নুসরাত ইমরোজ তিশা, চঞ্চল চৌধুরী, অপূর্ব, আফরান নিশো, তাহসান খান, মেহজাবীন চৌধুরী, তৌসিফ মাহবুব, তানজিন তিশা ও সাফা কবিরকে কাজে ফিরতে লিখিত অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বেসরকারি চ্যানেল আরটিভির প্রধান নির্বাহী সৈয়দ আশিক রহমান স্বাক্ষরিত এ চিঠিতে চাহিদা সম্পন্ন শিল্পীদের অনীহার কারণে অসংখ্য শুটিংকর্মী কাজে ফিরতে পারছে না বলেও উলেস্নখ্য করা হয়। এতে শিল্পীদের উদ্দেশ্য করে আরও বলা হয়, ‘আপনারা না হয় কয়েক মাস কাজ না করে বাসায় থাকতে পারছেন। কিন্তু শুটিংয়ের সঙ্গে জড়িত বেশিরভাগ কর্মী দিন আনে দিন খায়। আপনারা শুটিংয়ে নিয়মিত হলে তারাও কাজ পাবে, বাঁচবে তাদের জীবন ও সংসার। টিভি পর্দাগুলোতেও ফিরবে নতুন নাটক। পুরো টিভি ইন্ডাস্ট্রিতে ফিরবে প্রাণ।’

এদিকে চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দর্শকপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘চিঠি পেয়েছি। এতে লেখা কথাগুলো হয়তো সত্যি ও মানবিক। তবুও ঠিক জানি না, কবে নাগাদ আবার শুটিংয়ে ফিরতে পারব। এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। কারণ, আত্মবিশ্বাসটা পাই না।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রপারলি শুটিং করতে চাইলে কি স্বাস্থ্যবিধি মানা সম্ভব? জমায়েত মানেই তো সংক্রমণ। আবার এটাও প্রশ্ন, আমাদের অধিকাংশ প্রডিউসার বা ডিরেক্টর একটা ইউনিটের স্বাস্থ্য নিয়ে আসলে কতটুকু ভাবেন। অতীতে তেমন কোনও প্রমাণ দেখিনি। অতীত তার সাক্ষী। কী পরিমাণ নোংরা পরিবেশে দিনের পর দিন আমরা কাজ করতে বাধ্য ছিলাম, সেটা আর বলে বোঝানো যাবে না। তবুও কাজটাকে ভালোবেসে করেছি। আমার মনে হয় না, হঠাৎ করেই কেউ আমাদেরকে সেই হাইজেনিক শুটিং পরিবেশ তৈরি করে দেবে। যদি দেয়, তেমন আশ্বাস পাই, ভালো। শুটিং করব।’

এদিকে ‘সবার জন্য আমরা’ স্স্নোগান নিয়ে শিল্পীদের প্রতি পাঠানো এ চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘শুটিং অনুমোদন দেওয়ার পরও পরিস্থিতি বিবেচনায় আপনার মতো জনপ্রিয় শিল্পী নিয়মিত কাজ শুরু না করায় স্বল্প আয়ের শিল্পীরা সীমাহীন অর্থ কষ্টের মধ্যে পড়েছে। সবার জন্য আমরা, এই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে আপনার সহকর্মী ও শুটিং সংশ্লিষ্ট সবার জীবিকার কথা বিবেচনা করে আগামী ঈদে যে কোনো চ্যানেলে একাধিক নাটক ও টেলিফিল্মে অংশগ্রহণ করার বিনীত অনুরোধ করছি। আপনার অংশগ্রহণে হয়তো বাঁচতে পারবে আপনার সহকর্মী, ক্যামেরাম্যান, সহকারী পরিচালক, মেকআপ আর্টিস্ট, প্রোডাকশন বয়, লাইটম্যান, ক্যামেরা সহকারীসহ অন্যান্য কলা-কুশলী ও শুটিং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিবার।’

যদিও বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক ও খন্ডনাটকের কাজ শেষ করেছেন একাধিক শিল্পী। এর মধ্যে ইরফান সাজ্জাদ, মুমতাহিনা টয়া, অর্শা, তাসনুভা তিশা, মাজনুন মিজানসহ অনেক তারকাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুটিং শুরু করেছেন। অভিনেত্রী অর্ষা জানান, তিনি স্বাস্থ্যবিধি মেনেই এ সপ্তাহ ধরে কাজ করছেন। শুটিং সেটেও নেওয়া হয়েছে পর্যাপ্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা। ছোট পর্দার আরেক অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা জানান, তিনিও শিগগিরই কাজ শুরু করবেন। ঈদের আগেই কাজ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে তার।

আপনার মতামত লিখুন :