জনগণের কল্যাণে কাজ করছেন ইউএনও নাদিম সারওয়ার

0
46
কিছুদিন আগে জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাদিম সারওয়ার যোগদান করেন পাঁচবিবি উপজেলায়। যোগদানের পর থেকে দিবারাত্রি কাজ করে যাচ্ছেন উপজেলা বাসীর কল্যাণে। করোনাকালেও যেকনো সমস্যায় সেবা মিলছে তাঁর কার্যলয়ে। ধনী-গরিবের ভেদাবেদ ভূলে ন্যায় প্রতিষ্ঠায় এক অকুতোভয় সৈনিক তিঁনি। একারনেই উপজেলার নির্যাতীত জনসাধারণ সমস্যায় পড়লে ছুঁটে যান তাঁর কাছে ন্যায় বিচারের দাবিতে। ইউএনও তিঁনিও খালিহাতে নিরাস করে ফিরিয়ে দেননা।
প্রায় এক সপ্তাহ আগে উপজেলার শাইলট্টি হিন্দুপাড়া গ্রামে অর্ধশতাধিক পরিবারের যাতয়াতের একমাত্র কাঁচা রাস্তাটিতে বর্ষার পানি জমে থাকাবস্থায় বারবার যাতয়াতে রাস্তাটি হাঁটু পরিমাণ কাঁদাযুক্ত ও পিচ্ছিল হয়। এমন রাস্তায় চলাচলে তাঁদেরকে বহুকষ্ট পোহাতে হয়।
সরেজমিনে গিয়ে দেখাযায়, শাইলট্টি হিন্দুপাড়া যাওয়ার রাস্তায় এক হাঁটু পরিমাণ কাঁদা-পানি জমে থাকায় ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। এতে করে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হত। স্থানীয় প্রভাবশালী কুতুব উদ্দিন নামের একজন মাদ্রাসা শিক্ষক ওই রাস্তা বরাবর তাঁর নিজ জমিতে পুকুর খনন করে পুকুরের পাড় বাঁধার কারনে বর্ষার পানি নিচের দিকে নেমে যাওয়ার পথ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে তাঁদের বাড়িঘরে পানি উঠে এবং যাতয়াতের পথও পানিতে ডুবে যায়। এমতবস্থায় গ্রামবাসী এর প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করেন।
আবেদনের প্রেক্ষিতে নির্বাহী অফিসার পুকুর মালিককে তাঁর অফিসে ডেকে বর্ষার পানি নেমে যাওয়ার বিকল্প ব্যবস্থা করতে বলেন। নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে পুকুর মালিক নিজের টাকায় সকলের সহযোগিতায় প্লাসটিকের পাইপের মাধ্যমে অন্যদিক দিয়ে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করে দেন। গ্রামবাসীরা বলেন, কাঁদাপানিতে চলাচলে আমাদের কষ্টের কথা স্থানীয় মেম্বার, চেয়ারম্যান ও কুতুব মাষ্টারকে বহুবার বলেও কাজ হয়নি। ইউএনও স্যারকে বলার পরের দিনই মাষ্টার পাইপ দিয়ে পানি নেমে যাওয়ার ব্যবস্থা করেন। ফলে রাস্তার পানি নেমে যাওয়ায় আমাদের যাতয়াতের আর কোন ভোগান্তি রইল না। নির্বাহী অফিসারের এমন যুগোপযোগি পদক্ষেপে ভীষন খুশী গ্রামবাসী।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, গ্রামবাসীর আবেদনের প্রেক্ষিতে পুকুর মালিককে অফিসে ডেকে বলি যেহেতু আপনার পুকুর পাড়ের জন্য সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে সমাধানের ব্যবস্থা আপনাকেই করতে হবে। পুকুর মালিক নিজ খরচে পানি নেমে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দিবেন বলেও জানান নির্বাহী অফিসার।
আপনার মতামত লিখুন :