প্রিয়াঙ্কার মুকুটে নতুন পালক

0
39

বিয়ের পর পুরোপুরি আন্তর্জাতিক সেলিব্রেটি হয়ে গেছেন বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। যদিও বিয়ের আগেই হলিউডে যাতায়াত ছিল তার। দুয়েকটা সিনেমাতেও অভিনয় করেন সে সময়। আর সেই সুবাদে মার্কিন গায়ক ও অভিনেতা নিক জোনাসের সঙ্গে পরিচয় প্রিয়াঙ্কার। পরিচয় থেকে প্রণয় অতঃপর পরিণয়। আর অনাড়ম্বর সেই বিয়ের পর অনেকটাই হাওয়ায় ভাসতে থাকেন নিক-প্রিয়াঙ্কা। আজ এ দেশে কাল অন্যদেশে- এভাবেই ঘুরতে দেখা গেছে তাকে। শুধু তাই নয়, কান চলচ্চিত্র উৎসব, অস্কারের আসর, গ্রামি অ্যাওয়ার্ড, গোল্ডেন গেস্নাব অ্যাওয়ার্ডসহ বিশ্বের বড় বড় উৎসবগুলোতেও স্বতঃস্ফূর্তভাবে হাজির হচ্ছেন এ দুই তারকা। সর্বশেষ গোল্ডেন গেস্নাব অ্যাওয়ার্ডে তো নিজের ঝলমলে উপস্থিতিতে সব ক্যামেরাম্যানদের যেন পেছনে পেছনে ঘোরাচ্ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। যদিও তার জন্য আলোচনার পাশাপাশি সমালোচনাতেও পড়তে হয় এ অভিনেত্রীকে।

থাক ওসব কথা। বিয়ের পর বলিউডের ছবিতে অভিনয় করা একদম প্রায় বাদই দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। জাতিসংঘের বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে বিভিন্ন দেশ-বিদেশের শিশুদের সহায়তা করাই যেন তার একমাত্র দায়িত্ব এখন। সেইসঙ্গে করোনায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ব্যক্তি উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ তো আছেই। এত কিছুর পর থেমে নেই মিডিয়া অভিনয়ের কাজও। এই করোনাকালেও তাক লাগানোর মতো সব খবর দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা। বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার খোঁপায় একের পর এক সাফল্যের পালক যুক্ত হচ্ছে। নতুন ঘটনার নাম ‘ম্যাট্রিক্স-৪’।

বিশ্বের বহুল আলোচিত এ ছবির নতুন কিস্তির জন্য অভিনয়ে অংশ নিয়েছেন এই তারকা। অর্থাৎ হলিউড টিভি সিরিজ ‘কোয়ান্টিকো’র পর এবার চলচ্চিত্রেও দেখা যাবে তাকে। জানা যায়, কিয়ানু রিভেস অভিনীত ‘ম্যাট্রিক্স-৪’ এর অন্যতম চরিত্রে থাকছেন বলিউডের এই ‘দেশি গার্ল’। নতুন মুখ হিসেবে এতে আরও যুক্ত হতে যাচ্ছেন প্যাট্রিক হ্যারিস, ইয়াহিয়া আবদুল মতিন ও জোনাথন গ্রফ। ‘ম্যাট্রিক্স-৪’ এর পরিচালনা দায়িত্বে আছেন লানা ওয়াচোস্কি। বিশ্বজুড়ে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আগেই সান ফ্রান্সিসকোতে ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল। এরপর মার্চ মাসে বন্ধ হয়ে যায় দৃশ্যধারণ। তবে এখন পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হওয়ায় শুটিং শুরু হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছেন প্রিয়াঙ্কাও। স্বাস্থ্যবিধি মেনে জার্মানির বার্লিনে চলছে শুটিং।

১৯৯৯ সালে প্রথম বড় পর্দায় আসে ‘ম্যাট্রিক্স-৪’। এর পর একে একে মুক্তি পেয়েছে ‘দ্য ম্যাট্রিক্স রিলোডেড’ এবং ‘দ্য ম্যাট্রিক্স রেভুলেশনস’। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২২-এর ১ এপ্রিল মুক্তি পাবে ‘ম্যাট্রিক্স-৪’। সিকু্যয়েলে আগের মতোই নিও, ট্রিনিটি ও নায়োবির চরিত্রে থাকবেন যথাক্রমে কিয়ানু রিভস, ক্যারি অ্যান মস ও জাডা পিঙ্কেট স্মিথ। প্রিয়াঙ্কার চরিত্রের নাম এখনো প্রকাশ করা হয়নি। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনার কাজেও মন দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। গত সপ্তাহের আগে আমাজন প্রাইমের সঙ্গে দুবছরের জন্য মিলিয়ন ডলারের চুক্তি সই করেছেন তিনি।

নতুন প্রতিভাদের সুযোগ করে দেওয়ার জন্যই এই উদ্যোগ বলে জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী। বর্তমানে প্রিয়াঙ্কা দুটি আমাজন প্রজেক্টে কাজ করছেন। একটি হলো রিয়েলিটি ডান্স শো। নাম ‘সংগীত’। স্বামী নিক জোনাসের সঙ্গে তিনি এর প্রযোজনা করছেন। এটি তাদের বিয়ের সংগীত থেকে অনুপ্রাণিত। এখানে বর এবং কনের পরিবারগুলো বিজয়ী ট্রফির জন্য একে অপরের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। অন্যটি হলো ‘অ্যান্টনি অ্যান্ড জো রুসোস সিটাডেল’। এটি একটি স্পাই ড্রামা। এখানে প্রিয়াঙ্কাকে ‘গেম অব থ্রোনস’ এবং ‘বডিগার্ড’-এর রিচার্ড ম্যাডেনের সঙ্গে অভিনয় করতে দেখা যাবে।

এদিকে করোনা মোকাবিলায় শুরু থেকেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে আসছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও তার স্বামী নিক জোনাস। করোনায় আক্রান্ত এবং করোনা পরিস্থিতিতে পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত নারীদের জন্য এ তারকা জুটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার অর্থ সাহায্য করেছেন এরই মধ্যে। প্রিয়াঙ্কা বর্তমানে স্বামী নিক জোনাসের সঙ্গেই বসবাস করছেন লস অ্যাঞ্জেলেসের বাড়িতে। গত কয়েক দিনে তার মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে করোনা প্রতিরোধে একের পর এক কর্মসূচি নিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। আবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হয়ে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ত্রাণ তহবিলে সাহায্য করবেন শাহরুখ খান ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এরই মধ্য ভারত ও আমেরিকার স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি ১০,০০০ জোড়া জুতা দান করেছেন প্রিয়াঙ্কা। করোনার বিরুদ্ধে যারা ফ্রন্টলাইন যোদ্ধা হিসেবে কাজ করছেন, সেই সব স্বাস্থ্যকর্মীর সুরক্ষার কথা ভেবেই তিনি জুতা দান করেছেন বলে জানিয়েছেন। স্বামী নিক জোনাসের সঙ্গে এর আগে করোনার ত্রাণে ১৫টি সংগঠনে দান করেছেন তিনি। ইউনিসেফ থেকে পিএম কেয়ারস ফান্ড, গিভ ইন্ডিয়া থেকে ফ্রেন্ডস অব অসীমার মতো একাধিক সংগঠনে করোনা তহবিলে দান করেছেন তিনি। আমেরিকান সরকার বিশ্বের এ দুর্যোগ মুহূর্তে লকডাউনের সময়কাল বাড়িয়েছে। যার কারণে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তাদের ক্লাস, পরীক্ষা সবই অনলাইনে নিচ্ছে। কিন্তু দরিদ্র শিক্ষার্থীরা টাকার অভাবে ভার্চুয়াল ক্লাস রুমে জয়েন করতে পারছে না, কিংবা হেডফোনসহ অন্যান্য সরঞ্জামের সংকটে পড়ছে। এ সময় ইলেকট্রনিকস পণ্য উৎপাদনকারী কোম্পানি জেবিএলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে শিক্ষার্থীদের হেডফোন দেওয়ার ব্যবস্থা করছেন প্রিয়াঙ্কা। খবরটি প্রিয়াঙ্কা তার ইনস্টাগ্রাম আইডিতে একটি ভিডিওর মাধ্যমে শেয়ার করেন। এর ক্যাপশনে তিনি লিখেন, ‘শিক্ষা ও তরুণ ক্ষমতায়ন আমার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমি এবং জেবিএল একত্রিত হয়েছি লস অ্যাঞ্জেলেসের বাচ্চাদের নতুন ক্লাসরুমের পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া নিয়ে কাজ করতে।’

শেয়ার করা ভিডিওতে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘হ্যালো সবাই! এরকম খারাপ সময়ে মানুষের উচিত সমাজের কাজে হাতটা বাড়িয়ে দেওয়া এবং যার যতটুকুন সম্ভব সহায়তা করা।

আপনার মতামত লিখুন :