ভেঙে গেল এলিস পেরির ৫ বছরের সংসার

0
48

আইসিসি ওয়ানডে ব্যাটিং র‍্যাংকিংয়ে তৃতীয়, বোলিং র‍্যাংকিংয়ে পঞ্চম এবং অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ে প্রথম; এখানেই শেষ নয়। টি-টোয়েন্টিতে বোলিং র‍্যাংকিংয়ে নবম এবং অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ে দ্বিতীয়- এতেই স্পষ্ট বর্তমান সময়ে নারী ক্রিকেটের সেরা খেলোয়াড় অস্ট্রেলিয়ান পেস বোলিং অলরাউন্ডার এলিস পেরি।

শুধু র‍্যাংকিং নয়, ক্রিকেটের বাইবেলখ্যাত উইজডেন অ্যালমানাকের ২০২০ সালের সংস্করণে মিলেছে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতিও। দ্বিতীয়বারের মতো উইজডেনের লিডিং ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছে এলিস পেরি। তাকে নারী ক্রিকেটের ইতিহাসে অন্যতম সেরা তারকা বললে মোটেও অত্যুক্তি হবে না।

তবে খেলোয়াড়ি জীবনের মতো এতো মধুর রইল না পেরির ব্যক্তিগত জীবন। প্রায় ৫ বছর আগে ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন ম্যাট টমুয়ার সঙ্গে। কিন্তু পাঁচ বছর পেরুনোর আগেই বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পেরি ও ম্যাট। মেলবোর্ন রেবেলসের হয়ে পেশাদার রাগবি খেলেন ম্যাট।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকেই বনিবনা হচ্ছিল না পেরি ও ম্যাটের। তখনই দুজনে নৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন বিবাহ বিচ্ছেদের। এর প্রায় পাঁচ মাস পর সমঝোতামূলক বিবৃতির মাধ্যমে মিউচুয়াল ডিভোর্সের খবর নিশ্চিত করেছেন পেরি ও ম্যাট। যেখানে একে অপরের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধার কথা উল্লেখ করেছেন তারা।

রোববার দেয়া এ বিবৃতিতে লেখা রয়েছে, ‘একে অপরের প্রতি সর্বোচ্চ শ্রদ্ধা রেখেই চলতি বছরের শুরুতে আমরা বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আমাদের মনে হয়েছে দুজনের পরবর্তী জীবনের জন্য এটিই সেরা সিদ্ধান্ত। দুজনের সমঝোতার মাধ্যমেই নেয়া হয়েছে এটি। আমাদের বৈবাহিক জীবনেও একে অপরের প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা এবং নিজেদের গোপনীয়তার ব্যাপারে সর্বোচ্চ সতর্ক ছিলাম।’

আপনার মতামত লিখুন :