ভালোবাসি তাই…

0
178

ভালোবাসার সম্পর্কটা খুব অদ্ভুত। হঠাৎ দেখায় কাউকে ভালো লেগে গেল। তারপর তাকে না দেখলেই সারাক্ষণ কী যেন নেই, কী যেন নেই ভাব। তাকে ছাড়া পড়া, ঘুম, খাওয়া কিছুতেই মন বসে না। মনের কথাটি তাকে না বলা পর্যন্ত না বলার তাপে পুড়ে পুড়ে মরতে হয়। আবার বললে যদি সে ভুল বোঝে, যদি আঘাত করে চলে যায়! হাজারটা দ্বিধা-দ্বন্দ্ব নিয়ে একদিন তার সামনে গিয়ে দাঁড়ানো আর তারপর বলে ফেলা- ভালোবাসি। দুটি মন মিললে তবেই শুরু হয় একসাথে পথ চলা। এই পথ চলতে গিয়ে সবটা যে মসৃণ থাকে, এমন কিন্তু নয়। প্রথমদিকের উন্মাদনা সময়ের সাথে সাথে অনেকটাই কমে আসে। এর কারণ অভ্যস্ততা। সে তো রয়েছেই- এমন একটি অনুভূতি তাকে ধরে রাখার হাজারটা বায়না থেকে বিরত রাখে। আর তখনই শুরু হয় অপরপক্ষ থেকে অভিযোগ- আমাকে আর আগের মতো ভালোবাসো না! ভালোবাসা যদিও দেখানোর বিষয় নয় তবু মাঝে মাঝে ভালোবাসায় শান দিতে হয়। অতি তীক্ষ্ণ তরবারিও দীর্ঘদিন খাপবদ্ধ করে রাখলে তাতে মরিচা ধরে যায়। তাই ভালোবাসার মানুষটিকে চমকে দিতে মাঝে মাঝে কিছুটা পাগলামী আপনি করতেই পারেন।

উপহার

প্রিয় মানুষটিকে আপনি কতটা ভালোবাসেন তা বোঝানোর জন্য হলেও তাকে মাঝে মাঝে উপহার দিন। কী হবে সেই উপহার? হতে পারে তার প্রিয় কোনো বই, সাজপোশাকের অনুষঙ্গ কিংবা ছোট্ট একটি ফুল। উপহার হিসেবে যাই দিন না কেন, তাতে যেন ভালোবাসার কমতি না থাকে। বাধ্য হয়ে দামী উপহার দিলেন কিন্তু তাতে ভালোবাসার থেকে দায় যদি বেশি থাকে, সে উপহার না দেয়াই ভালো। যাই করুন না কেন, উপলক্ষ কিন্তু ভালোবাসা প্রকাশেরই।

চমক

যে জিনিসটি সে একেবারেই প্রত্যাশা করছে না, কিন্তু পেলে ভীষণ আনন্দিত হয়ে যাবে, এরকম কিছু তার জন্য করতে পারেন। এক শব্দে যাকে বলে `চমক`। এমন কিছু করুন, যাতে সে চমকে যায়। বিয়ে বার্ষিকি কিংবা তার জন্মদিন ভুলে গেছেন? ব্যাপার না। দেরিতে হলেও দারুণ কিছু করে আপনি তাকে চমকে দিতে পারেন। প্রিয় মানুষটি কিসে বেশি চমকে যাবে, সেটি নিশ্চয়ই আপনি জানেন!

বেড়ানো

পৃথিবীর বিশালতা বুঝতে হলে ঘুরে বেড়াতে হয়। সমুদ্রের বুকে কান পেতে তার গর্জন শুনতে হয়। সবুজের মাঝে হারিয়ে গিয়ে নিজেকে খুঁজে পেতে হয়। মধুর সম্পর্কটা ঝালাই করে নিতে মাঝে মাঝে তাই বেড়াতে বের হতে পারেন। আর সেজন্য কোনো উপলক্ষের দরকার নেই। দুজনের সম্মতিই যথেষ্ট। তবে আর দেরি কেন, সময় আর সুযোগ বুঝে দুজন মিলে বেরিয়ে পড়ুন!

আপনার মতামত লিখুন :