কাঁচপুরে মুসা নামের এক ব্যক্তি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যু

0
69

আব্দুল হালিম নিশাণ: সোনারগাঁও উপজেলার কাঁচপুর পশ্চিম বেহাকৈর এলাকায় জজ মিয়ার রিক্সার গ্রেজে অবৈধ পল্লী বিদ্যুৎ দ্বারা চার্জিং কালে ঘটনাস্থলেই মুসা(৩০) নামের এক ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেন। গতকাল বুধবার সকাল ৮ ঘটিকার সময় পশ্চিম বেহাকৈর এলাকার জজ মিয়া(৫০) পিতা মৃত্যু রওশান আলী, সাং পশ্চিম বেহাকৈর, থানা সোনারগাঁও, জেলা নারায়ণগঞ্জ। রিক্সার গ্রেজে অবৈধ বিদ্যুতের দ্বারা ব্যাটারী চালিত চার্জিংয়ের একটি তাড় সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। মুসা নামের সাধরন খেঁটে খাঁওয়া ব্যবসায়ী তাঁর কোম্পানীর তৈরীকৃত লোহার একটি গোল্ডলিফ সিগারেটের গাড়ি প্রতিদিনের মতো জজ মিয়ার গ্রেজে পার্কিংরত অবস্থায় থাকে। তিনি প্রতিদিনের ন্যায় ভোর সকালে জীবনের তাঁগিদে বাসা থেকে ছুটে যাচ্ছিলেন গাড়িটি বের করতে। কিন্তু মুসা নামের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর শেষ বারের মতো আর গাড়িটি বের হওয়া সম্ভব হয়ে উঠেনি।

জানাগেছে, তাঁর কর্মরত সিগারেটের গাড়িটি স্পর্শর মূহুর্তে অবৈধ বিদ্যুৎ চার্জিং ষ্টেশনেই মৃত্যুবরণ করেন মুসা। অনুসন্ধানে জানাগেছে, জজ মিয়ার অবৈধ পল্লী বিদ্যুৎ চার্জের সাথে কিছু সংখ্যাক বিদ্যুৎ কর্মকর্তারাও জড়িত রয়েছেন। সরকারী সম্পদ চুরি করে, তেমনী আবার মরণ ফাঁদেও ঝুঁকি পোঁহাতে হয়েছে অনেকের। এধরনের জজ মিয়ার অবৈধ গ্রেজ ব্যবসা দীর্ঘ বছর ধরে চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বিদুৎ কর্মকর্তা কিংবা স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে ম্যানেজ করে, তাঁর নিয়ম রীতি মতো রাঁতের আধাঁরে ব্যবসা পরিচালনা করেন। এবং সূত্রমতে জজ মিয়া এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগের ব্যবসাও মাঝে মধ্য করে থাকেন। স্থানীয় এলাকার নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক ৫/৬ জনে সাংবাদিকদের জানান, গোল্ডলিফের সিগারেটের ব্যবসায়ী ক্ষুদ্র খেঁটে খাঁওয়া মুসা, প্রতিদিন জজ মিয়া নামের রিক্সার গ্রেজের মধ্য কোম্পানীর একটি লোহার তৈরীকৃত গাড়ি পার্কিং করে থাকেন। কিন্তু হঠাৎ ভোর সকালে শুনা যাচ্ছে মুসা নামের সিগারেটের ব্যবসায়ী, অবৈধ বিদ্যুতের দ্বারা ব্যাটারী চার্জিংয়ের তাড় সংযোগটি বিচ্ছিন্ন হয়ে তাঁর গাড়ির মধ্য পড়ে থাকে। কিন্তু মুসা গাড়িটির উদ্দেশ্য গ্রেজ কক্ষে প্রবেশ করে, সিগারেটের গাড়িটি স্পর্শ করা মাত্রই বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যুবরণ করেন। আরও বলেন, জজ মিয়া এধরনের গঁভির রাঁতের আধাঁরে ঝুঁকিপূর্ন ভাবে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে। প্রতিনিয়ত অটোরিক্সা ও ইজিবাইক চালিত ব্যাটারী চার্জ পদ্ধতি চালিয়ে যাচ্ছেন। এ বিষয়ে গ্রেজ মালিক জজ মিয়া বলেন, ভাই মুসার মৃত্যুর ঘটনা সত্য, এটা মিথ্যা কথা বলে লাভ নাই। আমি এমন ধরনের মুসার ঘটনা দেখে, তাৎক্ষণিক ভাবে “ঢাকা মেডিকেল কলেজ” (ঢামেক) নিয়ে ভর্তি করে থাকি। কিন্তু মুসা মেডিকেলে মৃত্যু বরণ করেন। তবে ভাই এমন ঘটনার সূত্রপাতে আমাকে পুলিশে গ্রেফতার করেছেন।

এ বিষয়ে পল্লী বিদ্যুতের জিএমের সহকারী কামরুল ইসলাম বলেন, আমাদের লাইনে এমন একটি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যুর দুর্ঘটনা আমরা জানিনা। তবে আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। কাঁচপুরে আমাদের লাইনম্যান আছে, এখনি তাকে বলে দিচ্ছি। এবং গ্রেজে অবৈধ চার্জিংয়ের ব্যাপারে করোনা কালিন সময়ে আমরা থেমে আছি। তবে কিছুদিনের মধ্যে অবৈধদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবো বলে জানান তিনি।

সোনারগাঁও থানা ওসি বলেন, এমন ধরনের ঘটনা আমরা জানিনা বলে, মোবাইল ফোন রেখে দেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক বলেন, কাঁচপুরে এমন একটি বিদ্যুৎস্পৃষ্টের ঘটনা খুবই দু:খ জনক। সকালের ঘটনা বেলা শেষ হলো,পল্লী বিদ্যুৎ কর্মকর্তাদের কোন দায়িত্ব নেই। তবে আমি পল্লী বিদ্যুৎয়ের জিএমকে, এবিষয়ে কঠিন ভাবে বলে দিচ্ছি বলে জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :