কিশোর গ্যাং ও মাদক বন্ধে অভিভাবকদের সহযোগীতা চেয়েছেন পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম

0
63
নারায়ণগঞ্জে কিশোর গ্যাং এবং মাদক নির্মূলে প্রত্যেক সন্তানের অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম। শনিবার (২২ আগষ্ট) দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় আয়োজিত ওপেন হাউজডেতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান এবং অভিভাবকদের সহযোগীতার আশ্বাস দেন।
সিদ্ধিরগঞ্জের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে আগত রাজনীতিবীদ, জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে মোহাম্মদ জায়েদুল আলম বলেন, আমাদের সন্তানদের আমাদেরকেই ঠিক করতে হবে। পুলিশ আপনাদের সহযোগীতা করতে পারবে। যার ছেলে-মেয়ে তাকেই সামাল দিতে হবে। আমরা যদি নিরপেক্ষভাবে কাজ করি, তাহলেই সম্ভব। আর যদি মনে করেন নিজের ছেলে মাদক খায়, কোন সমস্যা নাই; অন্যের ছেলে খায়, তাকে আগে ধরতে হবে; তাহলে সমস্যা সমাধান হবে না। নিজেরটা আগে ধরতে হবে। যদি এই মনোভাব নিয়ে আসতে পারেন, তাহলে আমি কথা দিচ্ছি সিদ্ধিরগঞ্জের দশটা ওয়ার্ড মাদক মুক্ত করতে পারবো। আর নয়তো সারাদিন বক্তৃতা দিয়েও কোন লাভ নাই। অতএব কাজ করতে হবে। যদি আপনারা কাজ করতে চান, সিদ্ধান্ত নেন; আমরা কাজ করবো।
পুলিশ সুপার আরো বলেন, এখন যে কিশোর গ্যাং শুরু হয়েছে, সেটা আপনারাই প্রতিরোধ করতে পারবেন। কিশোররা চুলের বিভিন্ন স্টাইল করে টিকটক ভিডিও করে। এগুলো বন্ধ করেন, মাদকও বন্ধ হয়ে যাবে। মাদক সেবন বন্ধ করতে পারলেই এর চাহিদা কমে যাবে, আর চাহিদা কমে গেলেই মাদক ব্যবসা কমে যাবে। এটা একা পুলিশ, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবীদ পারবেনা। যাদি অভিভাবকরা চেষ্টা না করেন।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ কামরুল ফারুকের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ‘ক-সার্কেল’ মোঃ মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী। এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ ইয়াছিন মিয়া, প্রচার সম্পাদক তাজিম বাবু, নাসিক ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আরিফুল হক হাসান, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জি.এম. সাদরিল, সংরক্ষীত নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম সহ সাংবাদিক ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সদস্যবৃন্দ।
আপনার মতামত লিখুন :