জেলেদের কাছে চাঁদা আদায়, দুই পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত

0
34

জেলেদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়সহ বিভিন্ন অভিযোগে বরিশালের কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের দুই কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদেরকে থানা থেকে সরিয়ে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। সাময়িক বরখাস্তরা হলেন- কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) বশির আহমেদ ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. শরীফ।

মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ দেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে তদন্তে একটি অভিযোগের প্রাথমিকভাবে সত্যতা পাওয়া গেছে। এ কারণে সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদেরকে থানা থেকে সরিয়ে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি সূত্র জানায়, কয়েক মাস আগে ভয়ভীতি দেখিয়ে সদর উপজেলার চরমোনাই এলাকার বেশ কয়েকজন জেলে ও মাছ ধরার ট্রলার মালিকদের কাছ থেকে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তা চাঁদা আদায় করেন। পরবর্তীতে এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার কার্যালয় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছিল। ওই অভিযোগ তদন্ত করা হয়। তদন্তে প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতাও পাওয়া গেছে। তাছাড়া বর্তমানে নগরীতে আলোচিত ঘটনা দলিল লেখক রিয়াজের স্ত্রী আমিনা বেগম লিজাকে নির্যাতন করে স্বীকারোক্তি আদায়ের অভিযোগ রয়েছে এসআই বশির আহমেদের বিরুদ্ধে।

অন্যদিকে এসআই বশির আহমেদ ও এএসআই মো. শরীফের বিরুদ্ধে নির্ধারিত এলাকার বাইরে গিয়ে দায়িত্ব পালন ও ক্ষমতার অপব্যবহার করার অভিযোগও রয়েছে। এসব অভিযোগ খতিয়ে দেখে তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত এবং বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :