আয়োডিনেই পরাস্ত হবে করোনা?

0
29

বিশ্বজুড়ে এখন এক আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। গবেষক ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বৈশিষ্ট জানতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিভাবে এই ভাইরাসকে কাবু করা যায় তা খুঁজে বের করতে দিন-রাত এক করে কাজ চলেছেন‌ তারা।

সম্প্রতি এক নতুন গবেষণায় চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। সেখানে বলা হয়েছে আয়োডিন দ্রবণ সার্স-কোভ-২ ভাইরাসকে পরাস্ত করতে পারে।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, তিন ধরনের পভিডোন-আয়োডিন দ্রবণকে (০.৫ শতাশ, ১.২৫ শতাংশ ও ২.৫ শতাংশ) করোনা ভাইরাসের সংস্পর্শে নিয়ে আসা হলে ১৫ সেকেন্ডের মধ্যেই ভাইরাস নিষ্ক্রিয় হয়ে গেছে। একই পরীক্ষা ইথানল অ্যালকোহল নিয়েও করা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে পরীক্ষা একেবারেই ফলপ্রসূ হয়নি।

কানেক্টিকাট স্কুল অব মেডিসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এই গবেষণা চালিয়েছেন। তাদের দাবি ০.৫ শতাংশের দুর্বল আয়োডিন দ্রবণের সামনেও যেভাবে করোনা ভাইরাস বেকায়দায় পড়েছে তা দেখে বিস্মিত হয়েছেন তারা। ‘জামা ওটোল্যারিঙ্গোলজি- হেড অ্যান্ড নেক সার্জারি’ পত্রিকায় ওই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে। এর আগেও একটি গবেষণায় দাবি করা হয়েছিল, আয়োডিন দ্রবণ সার্স জাতীয় ভাইরাসকে কাবু করতে সক্ষম হতে পারে।

গবেষকদের দাবি, এই দ্রবণ প্রয়োগ করে ভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করতে ১৫ সেকেন্ডই যথেষ্ট। তাদের পরামর্শ এই দ্রবণ যদি নাসারন্ধ্র দিয়ে জীবাণুনাশক হিসেবে প্রয়োগ করা যায় তাহলে ড্রপলেটের মাধ্যমে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কমবে।

গবেষকদের আরও দাবি, যদি কোনও ব্যক্তির শরীরে কোভিড-১৯ সংক্রমণের চিহ্ন দেখা যায় সেক্ষেত্রেও আয়োডিন দ্রবণ প্রয়োগ করলে তা ভাইরাসকে ফুসফুস পর্যন্ত পৌঁছানো আটকাতে পারবে।

তবে গবেষকরা সবাইকে সতর্ক করে জানিয়েছেন, কেউ যেন বাড়িতে এটি প্রয়োগ না করেন। শুধুমাত্র চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানেই এটি প্রয়োগ করা যাবে।

আপনার মতামত লিখুন :