শহীদদের সবসময় স্মরণ করতে হবে: ডিসি জসিম উদ্দিন

0
61

জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন বলেছেন, মহান স্বাধীণতা যুদ্ধে বক্তাবলীতে যে হত্যাযজ্ঞ হয়েছিলো সেটা এই অঞ্চলের সবচাইতে বড় হত্যাযজ্ঞ। পাশের জেলা মুন্সিগঞ্জ থেকেও মুক্তিযোদ্ধারা এখানে এসে আশ্রয় নিতো। যারা সেদিন শহীদ হয়েছিলো তাদেরতো আর ফিরে পাবোনা কিন্তু তাদের পরিবারের লোকজন রয়েছে। তাদেরকে শুধু বছরের একটি দিনে স্মরণ করলেই হবেনা বরং তাদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে এমন কিছু করতে যাতে করে সবসময় তাদের কথা আমাদের স্মরণ করে। এজন্য আমরা বক্তাবলী শহীদ উচ্চ বিদ্যালয় বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠান তৈরি করতে পারি।রবিবার (২৯ নভেম্বর) সকালে বক্তাবলীর চব্বিশ পরগণায় বক্তাবলী দিবসের এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা একটি স্বাধীন দেশ দেখতে চেয়েছিলো, একটি সুন্দর প্রজন্ম দেখতে চেয়েছিলো। আমাদের প্রজন্মকে মুক্তিযোদ্ধাদের ব্যাপারে জানাতে হবে। তারা যেন কিশোর গ্যাং বা মাদকের সাথে জড়িয়ে না পড়ে সে ব্যাপারেও আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় ২৯ নভেম্বর বক্তাবলী দিবস পালিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষে মোঃ জসিমউদ্দিন , উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইউএনও নাহিদা বারিক শহীদদের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, ফতুল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসলাম হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :