বন্ধ হচ্ছে নারায়ণগঞ্জের সাজেদা হাসপাতালে করোনা রোগীদের সেবাদান

0
46

দেশব্যাপী যখন করোনার সংক্রমণ শুরু হয়, তখন রাজধানী ঢাকার পর করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেশি ছিল নারায়ণগঞ্জে। আর করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসছে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সাজেদা হাসপাতাল। এখন দেশব্যাপী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলেও ৩১ ডিসেম্বর থেকে হাসপাতালটির কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

সাজেদা ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাহেদ ফিজ্জা কবীর সাজেদা হাসপাতালের কোভিড-১৯ রোগী ভর্তিসহ রোগীদের সেবাদান সমাপ্তির বিষয়টি জানিয়ে মেয়র বরাবর চিঠি দিয়েছেন।

সাজেদা ফাউন্ডেশনের ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, কোভিড-১৯ সংকটকালে গত ২১ মার্চ স্বাস্থ্য অধিদফতর ও সাজেদা ফাউন্ডেশনের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ওই চুক্তি অনুযায়ী সাজেদা ফাউন্ডেশনের ৫০ শয্যার হাসপাতালকে কোভিড-১৯ হাসপাতাল হিসেবে চালু করা হয়। কোভিড হাসপাতাল চালুর পর ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশের আটটি বিভাগের ৩৯টি জেলার ৯৮৩ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৩১ রোগী আইসিইউয়ে সেবা নিয়েছেন।

‘সাজেদা ফাউন্ডেশনের আর্থিক সহায়তায় এ হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের চিকিৎসা, ডায়াগনস্টিক টেস্ট, ওষুধ, থাকা-খাওয়াসহ সব ধরনের খরচ হাসপাতাল থেকে বহন করা হয়। তবে সরকার থেকে কোনো ধরনের আর্থিক সাহায্য গ্রহণ করা হয়নি। আগামী ৩১ ডিসেম্বর চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে। তবে অবশিষ্ট ভর্তি রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরতে পারবেন। সেজন্য হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের সুবিধার্থে সেবাদান কার্যক্রম ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত চালু থাকবে।’

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, হাসপাতালটির কার্যক্রম চালু রাখার জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক বরাবর চিঠি দিয়েছি। নারায়ণগঞ্জে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসার জন্য ৩০০ শয্যার হাসপাতাল থাকলেও সাজেদা হাসপাতালের কার্যক্রম চালু রাখা প্রয়োজন বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :