৫৩ লাখ টাকা দিলে যৌন নিগ্রহের মামলা থেকে মুক্তি পাবেন বাবর

0
71

কয়েক সপ্তাহ আগে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বাবর আজম খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন নেতিবাচক কারণে। তিন টি-টোয়েন্টি ও দুই টেস্ট খেলতে নিউজিল্যান্ড সফরে থাকাকালীন সময়ে, তার বিরুদ্ধে আনা হয় যৌন নিগ্রহ ও মিথ্যা প্রতিশ্রুতির অভিযোগ, করা হয় মামলা।

লাহোরের বাসিন্দা হামিজা মুখতার নামের এক নারী বাবর আজমের বিরুদ্ধে করেন এই মামলা। সেই নারীর মূল অভিযোগ ছিল বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সেটি রাখেননি বাবর। এছাড়া তার ওপর যৌন নির্যাতনও করেছেন পাকিস্তানি অধিনায়ক। নিজের অভিযোগের স্বপক্ষে প্রমাণস্বরুপ বাবরের সঙ্গে বার্তালাপের ছবিও সংবাদমাধ্যমে দেখিয়েছেন হামিজা।

তবে এখন আবার শোনা যাচ্ছে নতুন খবর। বাবরের আইনি পরামর্শক দলের অভিযোগ, তাদের মক্কেলকে ব্ল্যাকমেইল করছেন হামিজা এবং দাবি করছেন প্রায় ৫৩ লাখ টাকা। অর্থাৎ ৫৩ লাখ টাকা দিলে বাবরের ওপর করা এই মামলা তুলে নেবেন হামিজা। এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করেছে বাবরের আইনি পরামর্শক দল।

শুরু থেকেই বাবরের ওপর করা মামলার সকল অভিযোগকে ভিত্তিহীন ও মিথ্যা বলে আসছে আইনি পরামর্শকরা। তাদের মতে, সেই নারী বাবরকে ফাঁসানোর জন্যই মূলত এ মামলা করেছেন এবং এখন ব্ল্যাকমেইলের মাধ্যমে ১ কোটি পাকিস্তানি রুপি (বাংলাদেশ মুদ্রায় প্রায় ৫৩ লাখ টাকা) নিতে চাচ্ছেন হামিদা।

যদিও বাবরের আইনজীবীর পক্ষ থেকে সাফ জানিয়ে দেয়া হয়েছে, তারা হামিজাকে একটা পয়সাও দেবে না। পাশাপাশি আদালতের কাছে তারা দ্রুত এ মামলার নিষ্পত্তি করতে আর্জি জানিয়েছে। তবে আপাতত এ মামলা মুলতবি ঘোষণা করেছেন আদালত এবং হামিজাকে তার পূর্ণাঙ্গ বক্তব্য উপস্থাপনের সুযোগ দিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :