হত্যার এক দশক পর গ্রেফতার ‘প্রেমিকা’

0
104

ভারতে এক দশক আগের একটি খুনের ঘটনায় নিহত যুবকের ‘প্রেমিকা’-কে গ্রেফতার করেছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। ২০১১ সালে ঘটে যাওয়া বেলঘরিয়ার জুনিয়র মৃধা হত্যা মামলায় প্রিয়াঙ্কা চৌধুরীকে দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার করে তারা। খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের। গ্রেফতার প্রিয়াঙ্কা মোহনবাগান ক্লাবের প্রাক্তন কর্তা, ব্যবসায়ী বলরাম চৌধুরীর পুত্রবধূ।

গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা যায়, এর আগে তদন্ত প্রক্রিয়ায় হত্যার প্রমাণ না পাওয়ায় রাজ্য গোয়েন্দা পুলিশ অভিযুক্তকে নির্দোষ আখ্যা দিয়েছিল। কিন্তু জুনিয়রের পরিবার উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হলে আদালত মামলাটির তদন্তের আদেশ দেন সিবিআইকে। তারা দীর্ঘ তদন্ত শেষে প্রিয়াঙ্কাকে গ্রেফতার করেন।

জানা যায়, ২০১১ সালের ১২ জুলাই বেলঘরিয়া এক্সপ্রেসওয়েতে পড়ে থাকা জুনিয়রের মরদেহ দেখে প্রথমে সড়ক দুর্ঘটনা বলে মনে করেছিল অনেকে। পরে ময়নাতদন্তে তার কাঁধে গুলির ক্ষতচিহ্ন দেখে এটি হত্যা হিসেবে প্রতীয়মান হয়। সিবিআই একটি ফোনের সূত্র ধরে তরুণ সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার জুনিয়রের সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা ওরফে মুনের যোগসূত্র পায়।

জুনিয়রের পরিবারের দাবি, ঘটনার দিন দুপুরে ফোনে ‘মুনের ডাকে’ বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন জুনিয়র।

প্রিয়াঙ্কার আইনজীবী অয়ন চক্রবর্তী দাবি করেন, ‘আমার মক্কেল এই হত্যার সঙ্গে জড়িত নন। তিনি তদন্তে সহযোগিতা করছিলেন।’ এর আগে রাজ্য পুলিশ এই হত্যার নিষ্পত্তি হওয়া কার্যত অসম্ভব বলার পর জুনিয়রের পরিবার আইনি পরিষেবা কর্তৃপক্ষের দ্বারস্থ হয়েছিল।

মামলায় হাইকোর্টে জুনিয়রের পক্ষে কাজ করেন জয়ন্তনারায়ণ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘দেরিতে হলেও জুনিয়রের বাবা-মা বিচার পাওয়ার পথে এগিয়েছেন বলে মনে হচ্ছে।’

আপনার মতামত লিখুন :