হেফাজতের হরতাল: সিদ্ধিরগঞ্জে র‍্যাব-পুলিশের ৬ মামলা

0
112

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে হেফাজতের হরতালে নাশকতার ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় পৃথক ছয়টি মামলা দায়ের হয়েছে।

এসব মামলায় বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য গিয়াস উদ্দিন ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, গিয়াসউদ্দিনের ছেলে ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিএম সাদরিল এবং ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনসহ বিএনপি-জামায়াতের ১৩৬ জনকে এজহারনামীয় আসামি করা হয়েছে। এছাড়া এই ছয় মামলায় অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে ৩২০০ জনকে।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দুপুরে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান।

jagonews24

তিনি জানান, সোমবার (২৯ মার্চ) রাতে পুলিশ বাদী হয়ে পাঁচটি এবং র‌্যাব বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশের দায়ের করা পাঁচটি মামলার মধ্যে চারটি সন্ত্রাস দমন আইনে ও একটি পুলিশের ওপর হামলাসহ সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। র‌্যাবের দায়ের করা মামলায় কারো নাম উল্লেখ না করে অজ্ঞাত ৪০০ থেকে ৫০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এনিয়ে ৬ মামলায় প্রায় ৩ হাজার ৩৩৬ জনকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ জনিয়েছে, হরতালের মধ্যে ৯টি ট্রাক, একটি বিআরটিসি বাস, ছয়টি কাভার্ডভ্যান, দুটি মাইক্রোবাসে আগুন দেয়া ছাড়াও সংবাদমাধ্যমের গাড়িসহ অর্ধশতাধিক গাড়ি নির্বিচারে ভাঙচুর করা হয়েছে।

ওসি মশিউর রহমান জানান, এই ছয় মামলায় এখন পর্যন্ত কোনো আসামিকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। নাশকতা সৃষ্টিকারীদের শনাক্তে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

jagonews24

মামলার বিষয়ে কথা হলে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপিকে ঘায়েল করতে এবং প্রকৃত ঘটনা আড়াল করার জন্যই এ মামলায় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদেরকে আসামি করা হয়েছে। এতে দোষীরা ছাড় পেয়ে যাবেন।’

jagonews24

তিনি আরও বলেন, হেফাজতের হরতালে আমাদের কোনো সমর্থনও ছিল না। আমরা অংশগ্রহণও করিনি।

উল্লেখ্য, রোববার (২৮ মার্চ) হেফাজতের ডাকা হরতালে সিদ্ধিরগঞ্জস্থ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর থেকে সাইনবোর্ড এলাকা ছিল হরতাল সমর্থকদের দখলে।

আপনার মতামত লিখুন :