নারী ও শিশুদের কল্যাণে কাজ করায় সম্মাননা পদকে ভূষিত সাংবাদিক সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি

0
37

দুস্থ-অসহায় নারী ও শিশুদের কল্যাণে অবিরাম গতিতে কাজ করায় বিশিষ্ট সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী সোনিয়া দেওয়ান প্রীতিকে ‘কাশফুল কালচারাল একাডেমি সম্মাননা পদক’ এ ভূষিত করা হয়েছে।

বুধবার (৩১ মার্চ) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের ডাক বাংলোতে কাশফুল কালচারাল একাডেমি আয়োজিত ‘‘স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও আমাদের সংস্কৃতির বিকাশ’’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তার হাতে এ সম্মাননা পদকে তুলে দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধান অতিথি ‘বেগম রোকেয়া রাষ্ট্রীয় পুরস্কার’ পদকে ভূষিত ও স্বাধীনতা যুদ্ধে রনাঙ্গনের বীর সিপাহশালা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব ফরিদা আক্তার (কমান্ডার) এবং উপস্থিত অন্যান্য গুণিজনদের হাত থেকে এ সম্মাননা পদক গ্রহণ করেন ‘দুস্থ-অসহায় নারী ও শিশু কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি।

সম্মাননা পদক প্রাপ্তিতে মহান আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় ও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে ‘সিস্টার অব হিউম্যানিটি’ খ্যাত এই নারী সমাজকর্মী বলেন, ‘‘আলহামদুলিল্লাহ, দেশে-বিদেশে দুস্থ অসহায় নারী ও শিশুদের কল্যাণ এবং তাদের মানবাধিকার রক্ষায় অবিরাম গতিতে কাজ করার পুরস্কার স্বরুপ আজ আমি যে সম্মাননা পদকে ভূষিত হলাম, এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি এই এক জীবনে আর নেই। মহান আল্লাহ তায়ালা রাব্বুল আল-আমিনের প্রতি লক্ষ্য কোটি শুকরিয়া জানাই, আল্লাহ পাক না চাইলে কুসংস্কারাচ্ছন্ন পরিবেশে বেড়ে উঠা সাধারন মধ্যবিত্ত ঘরের সেদিনের সেই স্কুল পড়ুয়া ছোট্ট একটা মেয়ে, যে কারও দুঃখ-কষ্ট দেখলেই চোখের জলে ভেসে যেতো, যে নিজের মুখের খাবার বিলিয়ে দিত অনাহারী-দুস্থ-অসহায় মানুষের মুখে, সেই ছোট্ট মেয়েটি আজ এত বড় হতে পারত না, পারত না মানুষের কাছে ‘সিস্টার অব হিউম্যানিটি’ হয়ে উঠতে। আজকের এই সম্মান প্রাপ্তিতে এই সমাজ ও সমাজের অসহায়-দুস্থ মানুষদের প্রতি আমার দায়িত্ব আরও কয়েক গুণ বেড়ে গেলো। জয় হোক মানবতার।’’

হাজী মিছির আলী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ পরিচালনা পর্ষদ এর সদস্য ও শিক্ষানুরাগী হাজী মোঃ শহিদুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্য়নির্বাহী কমিটির জনশক্তি ও কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব লায়ন শাহীন মালুম,লেখক ও গবেষক তারাপদ আচার্য্য,জেলা পরিষদ সদস্য মোস্তফা হোসেন চৌধুরী, তারাব পৌরসভার সাবেক মেয়র আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম চৌধুরী ,পাগলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ব্রোজেন্দ্রনাথ সরকার,শিক্ষাবিদ ও মানবধিকার কর্মী মোহাম্মদ কবির উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।

এছাড়াও রাজনীতি, সমাজসেবা, শিক্ষা, সংস্কৃতি, সাহিত্য, সাংবাদিকতায় স্ব স্ব ক্ষেত্রে যেসকল ব্যক্তিবর্গরা অসামান্য অবদান রেখেছেন তাদেরকেও সম্মাননা পদকে ভূষিত করা হয়। গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন রানা মাহমুদ, শ্রাবণী দাস শ্যামা, নৃত্য পরিবেশন করেন সাফা মারওয়া, ফারিন, মায়া।

অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন সংগঠন এর সভাপতি ও টিভি অভিনেতা মোখলেসুর রহমান তোতা।

আপনার মতামত লিখুন :