রয়েল রিসোর্ট কান্ড: টয়লেটে লুকিয়েও রক্ষা পেলেন না শম্ভুপুরা ইউপি চেয়ারম্যান

0
56

রয়েল রিসোর্টে হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক নারীসহ অবরুদ্ধের পর সহিংসতা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের মামলায় সোনারগাঁও উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আব্দুর রউফকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি উপজেলার শম্ভুপুরা ইউয়নের পরিষদের চেয়ারম্যান।সোমবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়ন পরিষদে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুল ইসলাম বলেন, সহিংসতা ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের মামলায় উপজেলার জাতীয় পার্টির সভাপতি ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রউফকে গ্রেফতারের পর নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে গ্রেফতার করা হয় সোনারগাঁও পৌর কাউন্সিলর ও জাতীয় পার্টির নেতা ফারুক আহমেদ তপন ও সাবেক কাউন্সিলর, জাতীয় পার্টির নেতা গরিবে নেওয়াজকে।

সোনারগাঁও থানার পরিদর্মক (তদন্ত) খন্দকার তবিদ রহমান জানান, হেফাজতের সহিংসতার মামলার এজাভুক্ত আসামি সোনারগাঁও উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সম্ভুপুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রউফকে শম্ভুপুরা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে গ্রেফতার করা হয়। হেফাজত ইসলামের সহিংসতার ঘটনার পর থেকে তিনি আত্মগোপনে থাকে। সোমবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে পরিষদের টয়লেটের ভেতর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়েল রিসোর্টে হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক এক নারীসহ অবরুদ্ধ হয়। এ ঘটনায় তার সমর্থকরা রয়েল রিসোর্টে, আওয়ামী লীগ অফিস, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঘরবাড়ি ভাংচুর ও মহাসড়কে অগ্নিসংযোগ করে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে দুটি ও ক্ষতিগ্রস্তরা বাদি হয়ে পাঁচটি মামলা করেন। মামলা ৪৪৬ জনের নাম উল্লেখ করে ১৮০০ জনকে আসামি করা হয়। ৭ মামলায় পুলিশ ৬৩ জনকে গ্রেফতার করেছে।

আপনার মতামত লিখুন :