প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মেরি এন্ডারসনে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে মদ ও বিয়ার: প্রশাসন নিরব

0
156

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা পাগলা এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে (বিআইপি জেটি) ভাসমান রেস্তোরাঁ ‘মেরি এন্ডারসনে’ ক‌রোনা মহামারি‌তে সব কিছু বন্ধ থাক‌লেও প্রকা‌শ্যে বি‌ক্রি হ‌চ্ছে মদ ও‌ বিয়ার। যার ফলে দেখা দিয়েছে সামাজিক অবক্ষয়।

সরকারি নির্দেশনায় সবকিছু বন্ধ থাকলেও প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের অবৈধ ব্যবসা। লাইসেন্স বিহীন কোনো ক্রেতার কাছে মদ বিক্রি নিষেধ থাকা সত্ত্বেও শিশু কিশোর যুবক বৃদ্ধ টাকা দিলেই পাচ্ছে মদ ও বিয়ার। মদ খেয়ে মাতাল অবস্থায় জেডির মাঠেই করছে মাতলামি ও‌ ইভটিজিং এর মতো অপরাধ।

বিভিন্ন জায়গা থেকে ঘুরতে আসা মেয়েদের দেখলেই শুরু করে অশ্লীল কথাবার্তা এবং টানা হেছরা। রহস্যজনক কারণে কিছু বলতে নারাজ জেটি বা রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ। মাদক বিক্রি করা অবস্থায় তাদেরকে জিজ্ঞেস করা হলে এভাবে প্রকা‌শ্যে মাদক বিক্রি করার অনুমতি রয়েছে কিনা, উত্তরে তারা বলেন, আপনারা দেখেন অনুমতি আছে না নাই। রেস্টুরেন্ট ম্যানেজারের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলে জানা যায় তিনি বলেন আমাদের পার্সেল বিক্রি করার জন্য নোটিশ দেওয়া আছে।

ভাসমান রেস্টুরেন্টে প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি হচ্ছে কিন্তু পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে নিরব থাকায় সচেতন মহল ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

অন্যদিকে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর উৎকুচের মাধ্যমে ঘুমায় বলে জনসাধারণ জানায়।

ভাসমান রেস্টুরেন্টে মাদক বিক্রির একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি রকিবুজ্জামান এর সাথে কথা বললে তিনি বিষয়টি দেখবে বলে জানান। যুব সমাজকে বাঁচাতে প্রকা‌শ্যে মদ ও বিয়ার বিক্রি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল।

আপনার মতামত লিখুন :