কঠোর লকডাউনে বিত্তশালী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে নাসরিন আক্তার

0
137
শিল্প ও বন্দরনগরী নারায়ণগঞ্জে আবার লকডাউন শুরু হচ্ছে। ২১ জুন সরকারি প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনে এ নির্দেশ দেওয়া হয়। ২২ জুন থেকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত এ লকডাউন কার্যকর ঘোষণা করা হয় । ফলে লকডাউনের কারণে খেটে খাওয়া শ্রমজীবী অনেক মানুষ বেকার হয়ে পড়বে।
এরা এতটাই হতদরিদ্র যে দিন আনে দিন খায় নামে পরিচিত। এদের সংসারে স্ত্রী-পুত্র-কন্যা এবং অনেক ক্ষেত্রে বৃদ্ধ বাবা-মা এবং বিধবা বোন, ভাইয়ের স্ত্রী থাকে। দিনমজুর মানুষ গুলি লকডাউন এর ফলে বেকার হয়ে পড়বে। যেমন রিকশাচালক, ভ্যানচালক, অটো চালক, ফুটপাতের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা নানা পেশার শ্রমজীবী মানুষ।
লকডাউনে তারা সংসারের খাদ্য জোগাত হিমশিম খাবে। তাই এ সময় সরকারের উচিত ইউনিয়ন পরিষদ ও শহর এলাকার ওয়াড ভিত্তিক দরিদ্র মানুষের তালিকা তৈরি করে খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করা।
পাশাপাশি বিত্তবান এবং বিভিন্ন এনজিও প্রভৃতি প্রতিষ্ঠানের উচিত লকডাউন চলাকালীন সময়ে হতদরিদ্র মানুষের খাদ্য সহায়তায় এগিয়ে আসা। রাজনৈতিক দল এবং যুব সংগঠনগুলি তাদের কার্যালয়ে দরিদ্র মানুষদের দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করতে পারে লঙ্গরখানা খুলে।
করোনা মহামারী মানবজাতির জন্য মহাবিপদ সঙ্কেত। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।
আপনার মতামত লিখুন :