রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড : মরদেহ শনাক্তে ৬০ নমুনা সংগ্রহ

0
176

নারায়ণগঞ্জের সেজান জুস ফ্যাক্টরির অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের শনাক্ত করতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গের সামনে তৃতীয় দিনের মতো স্বজনদের নমুনা সংগ্রহ চলছে৷ রোববার (১১ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ডিএনএ পরীক্ষার জন্য দুইজনের বিপরীতে চারজনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে৷

সিআইডির ফরেনসিক বিভাগের প্রধান রুমানা আক্তার এ তথ্য নিশ্চিত করেন বলেন, ‘রোববার তৃতীয় দিনের মতো আমরা নারায়ণগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ভিকটিমদের স্বজনদের ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করছি৷ তিনদিনে আমরা ৪২ জন ভিকটিমের বিপরীতে ৬০ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছি৷ নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রে বাবা-মা ও সন্তানদের অগ্রাধিকার দিচ্ছি৷’

তিনি বলেন, ‘আমরা আগেও বলেছি নিহতরা এক্সট্রিম পর্যায়ের দগ্ধ ছিলেন৷ যার কারণে তাদের দাত ও হাড়ের মাধ্যমে ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে৷ এ কারণে ডিএনএ পরীক্ষা করতে সময় লাগছে৷ ভিকটিমদের টিস্যু পুড়ে যাওয়ার কারণে আমরা সংগ্রহ করতে পারিনি৷ টিস্যু সংগ্রহ করতে পারলে এ প্রক্রিয়াটি সহজ হতো৷’

jagonews24

কতদিন পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আগামী আরও দুই/এক দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজে নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এরপরও ভিকটিমদের স্বজনরা নমুনা দিলে তা সংগ্রহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে সরিয়ে নিয়ে আমাদের নিজস্ব কার্যালয়ে স্থানান্তর করবো৷’

গত ৮ জুলাই বিকেলে রূপগঞ্জে সজীব গ্রুপের হাসেম ফুডস লিমিটেডের কারখানায় অগ্নিকাণ্ড ঘটে। ঘটনার প্রথম দিন তিনজনের মৃত্যু হয়। আহত হন অর্ধশত শ্রমিক। ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের ১৮টি ইউনিট ২০ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন প্রাথমিকভাবে নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর গত ৯ জুলাই সকালে ওই ভবনের চারতলা থেকে ২৬ নারীসহ ৪৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সব মিলিয়ে এ ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৫২ জনে। ২৯ ঘণ্টা পর ৯ জুলাই রাতে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন।

আপনার মতামত লিখুন :