মানবতাবিরোধী অপরাধ করছে মিয়ানমার জান্তা: এইচআরডব্লিউ

0
55

মিয়ানমারের সামরিক জান্তা মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত বলে অভিযোগ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। নিউইয়র্ক-ভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থাটি বলেছে, সামরিক অভুত্থানের বিরুদ্ধে যারা বিক্ষোভ করছে তাদের কঠোরভাবে দমন করছে জান্তা সরকার। বিরোধীদের গ্রেফতার, নির্যাতন ও হত্যা করা হচ্ছে, যা আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

সংগঠনটির এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক ব্র্যাড অ্যাডাস বলেন, সাধারণ নাগরিকের ওপর এ ধরনের হামলা মানবতাবিরোধী অপরাধের শামিল এবং দায়ীদের জবাবদিহিতার আওতায় আনা উচিত।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের অভিযোগের ব্যাপারে জানতে শনিবার মিয়ানমারের সামরিক কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র জাও মিন তুনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাতে সাড়া পাওয়া যায়নি।

এদিকে, মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখলের ছয় মাস পরেও বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ চলছে। শনিবার দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ের চারপাশে মোটরবাইকে চড়ে লাল ও সবুজ পতাকা উড়িয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের বিভিন্ন সংগঠন। বেসামরিক শাসনে প্রত্যাবর্তনের জন্য সেনাবাহিনীর সঙ্গে যেকোনো আলোচনার সম্ভাবনাও প্রত্যাখ্যান করেছে তারা।

স্থানীয় অধিকার সংগঠনগুলোর দাবি, সেনা অভ্যুত্থানের পর কমপক্ষে ৬ হাজার ৯৯০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া সরকারি বাহিনীর গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন অন্ততত ৯৩৯ জন। তবে দেশটির সামরিক বাহিনীর দাবি, এটি অতিরঞ্জিত পরিসংখ্যান। বিরোধী গোষ্ঠীকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে মিয়ানমার জান্তা বলছে, সাংবিধানিকভাবেই তারা ক্ষমতা গ্রহণ করেছে।

উল্লেখ্য, অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন গণতান্ত্রিক সরকারকে হটিয়ে গত ২ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সামরিক বাহিনী।

আপনার মতামত লিখুন :