করোনা চিকিৎসার নামে জনগণের পকেট কাটা হচ্ছে : মোস্তফা

0
86

করোনা পরিস্থিতিতে বিত্তহীন মানুষ চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বিশেষ করে বেসরকারি হাসপাতালগুলো করোনা চিকিৎসার নামে মূলত জনগণের পকেট কাটছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

তিনি আরও বলেছেন, ‘বাংলাদেশের বিরাজমান বাস্তবতায় চিকিৎসা ব্যয়ের ব্যাপারে একটা হার নির্ধারণ করে দেয়া খুবই জরুরি। করোনা চিকিৎসার চিকিৎসাবিধি সরকারি বা বেসরকারি হাসপাতালে অনুসরণ করা হচ্ছে কি না, তা কেউ দেখছেন না। সুতরাং বাড়তি ওষুধ বা পরীক্ষা–নিরীক্ষা বেশি হচ্ছে কি না, তা নজরদারির মধ্যে আনা উচিত।’

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) দলটির নরসিংদী জেলা আয়োজিত ভার্চুয়াল সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘হাসপাতালগুলোতে করোনা রোগীদের জিম্মি করা হচ্ছে। হাসপাতালগুলো মূলত চিকিৎসার নামে জনগণের পকেট কাটার দায়িত্বটাই সঠিকভাবে পালন করে। আবার এদের মালিকরা টিভিতে নীতিবাক্য বলতে বলতে গলা শুকিয়ে ফেলেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, বেসরকারি অনেক হাসপাতালেই মানসম্পন্ন চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘বেসরকারি হাসপাতালগুলো করোনা চিকিৎসা দিলে তারা তাদের মতো করেই বিল করবে। সেই বিল চিকিৎসাপ্রার্থীকে মেটাতেও বাধ্য করা হয়। বিল না মিটিয়ে কেউ হাসপাতাল ত্যাগও করতে পারে না। আবার অস্বাভাবিক বিল করলে তা চ্যালেঞ্জ করারও কোনো উপায় থাকে না। ফলে জনগণ প্রতিনিয়ত এদের দ্বারা শোষণের শিকার হচ্ছে।’

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ন্যাপের ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, যুগ্ম মহাসচিব এহসানুল হক জসীম, জেলা সমন্বয়কারী এখলাছুল হক, নির্বাহী সদস্য রবিউল আউয়াল, আবদুস সালাম, রফিকুল ইসলাম, সাইদা আমিন প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :