মাঠ পর্যায়ের কর্মী পারভেজ কে ফতুল্লা ইউনিয়ন যুবদলের আহ্বায়ক কমিটিতে অন্তর্ভুক্তি

0
105

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল ফতুল্লা ইউনিয়ন আহ্বায়ক কমিটির সদস্য পদ পেয়েছেন বর্তমান সময়ের সংগ্রামী কর্মী মোঃ পারভেজ। গত ২ অক্টোবর শনিবার ফতুল্লা ইউনিয়ন যুবদলের ফেসবুক আইডি থেকে প্রচার করা হয় খবরটি। এই খবরে দলীয় নেতা কর্মীদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন বার্তায় পারভেজ নিজেকে আরো যোগ্য এবং দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য যে, বিগত ২০২০ সালের ১৪ ডিসেম্বর ৩১ সদস্য বিশিষ্ট ফতুল্লা ইউনিয়ন আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেন ফতুল্লা থানা যুবদলের আহ্বায়ক মোঃ মাসুদুর রহমান মাসুম ও সদস্য সচিব মোঃ সালাহ্উদ্দিন। ফতুল্লা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পরও আহ্বায়ক কমিটির মধ্যে পারভেজ কে রাখা হয়নি। যার ফলে ফুঁসে ওঠে স্থানীয় মাঠ পর্যায়ের দলীয় নেতৃবৃন্দ।

সেই কমিটিতে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে স্থানীয় যুবদলের নেতৃবৃন্দ মাঠ পর্যায়ের সংগ্রামী কর্মী এবং দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ মোঃ পারভেজ কে আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেন। সাংগঠনিক কাজে সন্তুষ্ট হয়ে ফতুল্লা ইউনিয়নের যুবদলের আহ্বায়ক কমিটিতে স্থান দেয়ায় নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের সংগ্রামী সভাপতি শহীদুল ইসলাম টিটু, ফতুল্লা থানা যুবদলের আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব সহ ফতুল্লা ইউনিয়ন যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন সংগ্রামের ঘোষণা দেন মোঃ পারভেজ।

বর্তমান সময়ের আন্দোলন সংগ্রামের নেতা মোঃ পারভেজ বলেন, ‘এখনো ঘরে ঘরে গিয়ে পুলিশি আক্রমণ চলছে, হয়রানি হচ্ছে, তল্লাশি চলছে। কেন, কারণ কী? কারণ, যুবদল জেগে উঠছে। যুবদল নতুন করে সাজানো হচ্ছে, কমিটি গঠন করা হচ্ছে। এতে নতুন জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, নতুন প্রাণের সৃষ্টি হয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, আগামী জানুয়ারির মধ্যে ইউনিয়নের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে সরকার বিরোধী আন্দোলন আরো জোরদার করা হবে।

যুবদলের শীর্ষ এক নেতা একুশের কাগজ কে বলেন, যারা জনপ্রিয়, সাহসী ও স্বতঃস্ফূর্তভাবে রাজপথে থাকবে-এমনদের নেতাদের দিয়ে কমিটি গঠন করতে বলা হয়েছে। অযোগ্যদের দিয়ে কমিটি সংখ্যায় বড় না করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে প্রতিটি টিমকে। কোথাও সমস্যার সম্মুখীন হলে উপস্থিত বুদ্ধি দিয়ে তা সমাধান করতে বলা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :