‘সুবর্ণজয়ন্তীর অর্জন, টেকসই অর্থনীতির উন্নয়নশীল বাংলাদেশ’

0
50

মহিলা ও শিশু-বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর সাড়ে তিন বছরের সরকারের যে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও গতি ছিল, তাতে দশ বছর আগেই বাংলাদেশ উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হতো। কিন্তু জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যার মাধ্যমে সেই উন্নয়ন থমকে যায়। জনগণ বঞ্চিত হয় স্বাধীনতার সুফল থেকে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একযুগের নিরলস পরিশ্রম ও সুযোগ্য নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ বিশ্বে সম্মানের আসনে প্রতিষ্ঠিত। অর্থনীতির সব সূচকে বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশসহ অনেক উন্নত দেশের চেয়ে এগিয়ে আছে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আমাদের পরিচয়, আমরা উন্নয়নশীল দেশের গর্বিত নাগরিক। খাদ্য উদ্বৃত্ত ও টেকসই অর্থনীতির উন্নয়নশীল বাংলাদেশ।’

শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) রাজধানীতে মহিলা-বিষয়ক অধিদপ্তর আয়োজিত স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিববর্ষ ও মহান বিজয় দিবস ২০২১ উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মহিলা-বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু-বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য দেন অধিদপ্তরের পরিচালক মনোয়ারা ইশরাত।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশের মানুষকে শোষণ-বঞ্চনা থেকে মুক্ত করা। বাংলাদেশকে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ দেশে পরিণত করা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে সেই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান লাকী ইনাম, অতিরিক্ত সচিব ফরিদা পারভীন ও অতিরিক্ত মো. মুহিবুজ্জামানসহ মন্ত্রণালয় ও দপ্তর/সংস্থার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা। আলোচনা শেষে বিজয় দিবস উপলক্ষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন :